শনিবার , সেপ্টেম্বর ২৫ ২০২১
Home / কবুতরের রোগ ও চিকিৎসা / কবুতরের ডিম না জমার কারণ ও সমাধান

কবুতরের ডিম না জমার কারণ ও সমাধান

আসসালামুয়ালাইকুম। আজকে যে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করবো তা খুবই কমন একটা বিষয় আর তা হলো কবুতরের ডিম কেনো জমে না বা ডিম থেকে কেনো বাচ্চা বের হতে পারে না? এই বিষয়টা নিয়ে অনেক কবুতর পালক চিন্তিত হয়ে পরেন এবং এর সমাধান খুজে বেড়ান । দেখা যাচ্ছে মাদী কবুতর ডিম দিচ্ছে,ডিমে তা দেওয়ার ১৮ দিন পরেও বাচ্চা ফুটছে না। ডিম ফেলে দেওয়ার সময় দেখা যাচ্ছে ডিমের ভিতর পচা কুসুম ছাড়া আর কিছুই নাই । এটা হচ্ছে অনুর্বর ডিম যার ভিতর শুক্রানো প্রবেশ করেনি। ঠিক ফার্মের কেনা মুরগির ডিমের মত। এই সমস্যার কারন দুইটি হতে পারে এক নর কবুতর মেটিং করে না, দুই ভিটামিনের অভাব ।



এখন চলুন আমরা এই ধরনের সমস্যার সমাধান জেনে নেই-
এই ধরনের সমস্যা হলে প্রথমেই নর ও মাদী কবুতরকে আলাদা করে দিতে হবে এক মাসের জন্য। তৈলাক্ত খাবার যেমন, তিল,সরিষা এগুলি বন্ধ করে দিতে হবে। শুকনো ধান, গম এ ধরনের খাবার দিতে হবে। এবং ভিটামিন ই দিতে হবে সপ্তাহে তিন দিন,সেই সাথে মাল্টিভিটামিন দিন সপ্তাহে দুইদিন । ভিটামিন ই হিসেবে বাজার থেকে মানুষের ঔষধ ‘ই-ক্যাপ’ ২০০ পাওয়ার কিনে ৫০ মি.লি পানিতে ক্যাপসুলের ভিতরের তরল ঔষধ ভালকরে মিশিয়ে নিতে হবে। প্রতিদিন একটি ক্যাপসুল একটি কবুতরকে দিতে হবে টানা তিনদিন । মাল্টিভিটামিন ১ গ্রাম ১ লিটার পানিতে মিশিয়ে সাধারন পানির মতো কবুতরকে দিবেন টানা ৩ দিন প্রতিদিন ৬ ঘন্টার জন্য। মাল্টিভিটামিন হিসেবে আপনি রেনা ডব্লিউ এস দিতে পারেন। এটা খুব ভালো কাজ করে। আমি নিজে এই ঔষধটি ব্যবহার করি এবং এই ঔষধ থেকে আমি ভালো ফলাফল পেয়েছি। ভিটামিন ই তিনদিন দেওয়া হলে,পরবর্তি তিনদিন মাল্টিভিটামিন দিবেন । মনে রাখবেন এই দুইটি ডোজ একসাথে একই দিনে দেওয়া যাবে না । এই ট্রিটমেন্ট একমাস করার পর নর ও মাদী একত্রে করবেন,ইনশাল্লাহ কাজ হয়ে যাবে । আজ এ পর্যন্তই। ভালো থাকুন আপনি এবং ভালো থাকুক আপনার শখের কবুতর।

এই পোস্ট আপনাদের উপকারে আসলে একটি লাইক, কমেন্ট ও শেয়ার করুন। ধন্যবাদ...

Check Also

কবুতরের সবুজ পায়খানা

কবুতরের সবুজ পায়খানা হলেই কি রোগে আক্রান্ত?

আসসালামুয়ালাইকুম কবুতর প্রেমি ভাই, বোন এবং বন্ধুগণ! আশা করছি সকলেই মহান আল্লাহর অশেশ রহমতে ভালো …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *