বুধবার , আগস্ট ৪ ২০২১
Home / কবুতরের যত্ন / কবুতরের জন্য গোসল | কবুতরের গোসলের উপকারিতা যা হয়ত আপনার অজানা
কবুতরের জন্য গোসল | কবুতরের গোসলের উপকারিতা যা হয়ত আপনার অজানা
কবুতরের জন্য গোসল | কবুতরের গোসলের উপকারিতা যা হয়ত আপনার অজানা

কবুতরের জন্য গোসল | কবুতরের গোসলের উপকারিতা যা হয়ত আপনার অজানা

যারা কবুতর পালে তারা হয়ত অনেকেই কবুতরের গোসলের উপকারিতা সম্পর্কে জানেনা। গোসল কবুতরের স্বাস্থ্য ভালো রাখা ভাল ডিম বাচ্চা উৎপাদন এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

কবুতরকে গোসল না দিলে যেসব সমস্যা হতে পারে বা কবুতরের জন্য গোসলের উপকারিতা-

১। নিয়মিত গোসল এর ফলে কবুতরের গায়ের রং সুন্দর হয়। কবুতরের গায়ের পালক এর উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি  পায়ে।  গোসল এর অভাবে আপনার সুন্দর কবুতর টি  দেখতে হয়তো  অসুন্দর হয়ে যেতে পারে।

২। নিয়মিত গোসল এর ফলে কবুতরের শরীরে রোগ জীবাণু কম হয়। কবুতর রোগাক্রান্ত কম  হয়।

৩। যেসব কবুতর ডিমে তা দেয় সেসব কবুতরের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কেননা কবুতর গোসল করে ডিমে বসলে কবুতরের ডিমের আদ্রতা বজায় থাকে এবং ডিম ফুটে বাচ্চা টি খুব সুন্দর ভাবে বেরিয়ে আসে।

অনেকেই ডিম ভেজা কাপড় দিয়ে মুছে দেয় ডিমের আদ্রতা বজায় থাকার জন্য। কবুতরকে নিয়মিত গোসল দিলে এটি করার কোন প্রয়োজন  নেই। কেননা কবুতর গোসল করে ডিমে গিয়ে বসবে এবং প্রয়োজনীয় আদ্রতা পাবে।

৪। নিয়মিত গোসল দিলে কবুতরের গায়ে মাছি পোকা উকুন কম হয়। কবুতরের গায়ে খুব বেশি পরিমাণে পোকা হয়ে গেলে কবুতর তার অস্বস্তির কারণে ডিম থেকে উঠে যেতে পারে। তাই নিয়মিত গোসল কবুতরের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

৫। গরমের দিনে কবুতরের গায়ের তাপমাত্রা বজায় রাখতে গোসল গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। অতিরিক্ত গরম কবুতরের হিট স্ট্রোকের কারণ হতে পারে তাই নিয়মিত গোসল কবুতরের হিট স্ট্রোক হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে কমিয়ে আনে।

৬। অনেকে শীতে কবুতরকে গোসল দেয় না। এটি একটি ভুল ধারনা। শীতের দিনেও কবুতরের জন্য গোসল গুরুত্বপূর্ণ। আপনি পানি দিয়ে রাখুন কবুতরের যদি দরকার হয় সে নিজে থেকেই গোসল করে নেবে।

কবুতরকে গোসলের জন্য জোর করার কোন প্রয়োজন নেই।যদি সম্ভব হয় গোসলের পরে শীতের দিনে কবুতরকে কিছু সময়ের জন্য রোদে রাখবেন।

৭। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিতে কবুতরের গোসল খুবই গুরুত্বপূর্ণ। গোসল এর অভাবে কবুতর অসুস্থ থাকে এবং বিভিন্ন সমস্যা হতে পারে।

কতদিন পর পর কবুতরকে গোসল দিবেন?

যারা কবুতর ছেড়ে পালে তারা বড় একটি বাটি কিংবা গামলায় পানি দিয়ে রাখবেন। কবুতরের যখন দরকার হবে সে নিজে থেকেই গোসল করবে। গরমের দিনে আপনি পানি দিয়ে রাখলে দেখতে পারবেন কবুতর প্রত্যেক দিনই গোসল করে।

যারা খাঁচায় কবুতর পালন করে তারা মাঝে মাঝে কবুতরকে ছেড়ে দিয়ে গোসল করিয়ে নিতে পারেন। সেটা যদি সম্ভব না হয় তাহলে খাঁচায় কবুতর বসতে পারে এমন বড় বাটিতে পানি দিয়ে রাখুন।

কবুতরের যখন দরকার হবে সে নিজে থেকেই গোসল করবে। আপনি হয়তো একটু খেয়াল করলেই দেখতে পাবেন মাঝে মাঝে কবুতর তার খাবারের পানির বাটিতে মুখ ডুবিয়ে পানি ছিটিয়ে গোসল করার চেষ্টা করে। তখন যদি আপনি কবুতরকে পানি দেন তাহলে সে গোসল করবে। এছাড়াও স্প্রে করেও খাঁচার কবুতরকে গোসল করানো যায়।

সতর্কতাঃ

অনেকেই গোসলের পানিতে পটাশ বা স্যাভলন ব্যবহার করে থাকে। এই পানি খেয়ে ফেললে তা কবুতরের জন্য বিপদজনক হতে পারে। তাই কবুতর যেন এই পানি না খেয়ে ফেলে সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।

সবথেকে ভালো হয় এসব উপাদান দিয়ে আপনি যখন কবুতরকে গোসল করাবেন তখন হাতে ধরে গোসল করিয়ে দিতে পারেন। তাহলে এই  ভয় টি আর থাকবে না। কখনোই কবুতরকে গোসল এর ক্ষেত্রে জোর না করাই ভালো। কবুতরের গোসল এর দরকার হলে পানি দিয়ে রাখলে সে নিজে থেকেই গোসল করবে।

সবাই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন এবং নিজ কবুতরের খেয়াল রাখবেন।

এই পোস্ট আপনাদের উপকারে আসলে একটি লাইক, কমেন্ট ও শেয়ার করুন। ধন্যবাদ...

Check Also

কবুতরের সুষম ও পুষ্টিকর খাবার

কবুতরের জন্য সুষম ও পুষ্টিকর খাবার তৈরি

কবুতরের ভাল স্বাস্থ্য এবং ডিম বাচ্চা করার জন্য এবং কবুতরকে রোগমুক্ত রাখতে ভালো খাবারের গুরুত্ব …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *